শনিবার, ২৪ অক্টোবার ২০২০ ,

প্রকাশ :০৩ অক্টোবার ২০২০ , ০২:৪৯ PM

নেইমারের জোড়া গোলে পিএসজির বড় জয়

single image

এঞ্জার্সকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে লিগে টানা চতুর্থ জয় পেলো প্যারিস সেইন্ট জার্মেই-পিএসজি। বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের হয়ে জোড়া গোল করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার। এ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুয়ে উঠে এলো পিএসজি।

লিগ ওয়ানের শুরুটা তেমন একটা ভালো না হলেও, দলগত পারফরম্যান্স উপহার দিয়ে জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে পিএসজি। প্যারিসে এঞ্জার্সকে গোল বন্যায় ভাসিয়ে টেবিলের দুয়ে উঠে এলো থমাস টাচেলের শিষ্যরা।

ঘরের মাঠে শুরুতেই আধিপত্য বিস্তার করে পিএসজি। প্রতিপক্ষের রক্ষণদূর্গে মুহুমুর্হ আক্রমণ শানায় প্যারিসিয়ানরা। তার ফলও পায় দ্রুত। ইতালিয়ান ডিফেন্ডার ফ্লোরিন্সের দুর্দান্ত ভলিতে লিড নেয় পিএসজি।

এরপর বল নিজেদের দখলে নিয়ে ব্যবধান বাড়াতে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে স্বাগতিকরা। ৩৬ মিনিটে এমবাপের বাড়ানো বলে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নেইমারের শট জালে জড়ালে স্কোর লাইন দাঁড়ায় ২-০। পিছিয়ে পড়ে গোল শোধে মরিয়া হয়ে ওঠে অতিথিরা। কিন্তু সুযোগ পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হয় এঞ্জার্স ফরোয়ার্ডরা।

বিরতির পরও যেনো নেইমার ঝলক। ৪৭ মিনিটে ফ্লোরেন্সের অ্যাসিস্টে দারুণ এক গোল করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। তবে চার মিনিট পরই ইসমায়েলের গোলে ব্যবধান কমায় এঞ্জার্স।

অবশ্য সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে পিএসজির দাপুটে ফুটবলে নাস্তানাবুদ স্টিফেনের দল। ৫৭ মিনিটে আবারো ব্যবধান বাড়ায় প্যারিস সেইন্ট জার্মেই। গোল করেন জার্মান মিডফিল্ডার জুলিয়ান ড্রাক্সলার।

এরপর ড্রাক্সলারের বদলি হিসেবে মাঠে নেমেই জোরালো শটে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন গানা গেয়ি। ফলে ৫-১ গোলে এগিয়ে যায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

রেফারির শেষ বাঁশি বাজার ৬ মিনিট আগেই এঞ্জার্স কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন এমবাপে। শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোল না হলে জয়ের উল্লাসে মেতে ওঠে প্যারিসিয়ানরা। ৬ ম্যাচে ৪ জয় ও ২ হারে ১২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুয়ে পিএসজি।

এই বিভাগের আরো খবর ::

Image

নামাজের সময়সূচী

সূর্যোদয় ভোর ৫ : ৪০ টা
ফজর ভোর ৬ : ০০ টা
যোহর দুপুর ১: ০০ টা
আছর বিকাল ৪ : ৩০ টা
মাগরিব সন্ধা ৬ : ৩০ টা
এশা রাত ৮ : ১৫ টা
সূর্যাস্ত সন্ধ্যা ৬ : ০০

অনলাইন জরিপ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘সিটি নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় জেনেই বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে।’ আপনি কি তা-ই মনে করেন?